Home » Result » জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল

জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল

জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল

২০১৯ সালের জেএসসি পরীক্ষার ফলাফলঃ

বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনস্থ নয়টি শিক্ষাবোর্ড যথাক্রমেঃ- বরিশাল শিক্ষা বোর্ড, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড, কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা শিক্ষা বোর্ড, দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড, যশোর শিক্ষা বোর্ড, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড, সিলেট শিক্ষা বোর্ড, টেকনিক্যাল/ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১৯ সালের জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল আগামী ৩১ ই ডিসেম্বর বেলা ১২:০০ টায় প্রকাশিত হয়।

জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল

স্বাভাবিকভাবেই পরীক্ষার পর থেকে শুরু করে রেজাল্ট প্রকাশিত না হওয়া পর্যন্ত, ছাত্র / ছাত্রীরা নিজের এবং অবিভাবকগন তাদের সন্তানদের ফলাফল নিয়ে খুবই চিন্তিত থাকেন। সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়তে হয় রেজাল্ট প্রকাশিত হওয়ার দিন। কারণ, বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের এই www.educationboardresults.gov.bd এই ওয়েবসাইটটি অতিরিক্ত ভিজিটর আর লোডিং এর চাপের কারনে সাইটটি অফ হয়ে যায়।

ফলে ছাত্র / ছাত্রী এবং অবিভাবকগন তাদের কাঙ্খিত জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল যথাসময়ে না পেয়ে হতাশা আর বিভ্রান্তির মধ্যে পরে যায়। অথচ আমাদের মধ্যে অনেকেরই জানা নাই যে, শিক্ষা বোর্ডের এই www.educationboardresults.gov.bd ওয়েবসাইট টি ছাড়াও আরো অনেকগুলো অফিসিয়াল ওয়েবসাইট আছে, যেখান থেকে আপনি খুব সহজেই ২০১৯ সালের জেএসসি এবং জেডিসি রেজাল্ট ফুল মার্কশিট সহকারে খুব সহজেই জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যায়।

গত ১ নভেম্বর জেএসসি পরিক্ষা শুরু হয় এবং সমাপ্ত হয় ১৫ নভেম্বর। জেএসসি পরিক্ষা অনুষ্ঠিত হয় মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে।এই পরীক্ষায় মোট ২৯ হাজার ৬৭৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অংশনিয়েছে। এতেসর্বচ্চ ২৬ লাখ ৭০ হাজার ৩৩৩ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়।এছাড়াও বিদেশে নয়টি কেন্দ্র থেকে জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় ৫৫৪ জন বাংলাদেশী শিক্ষার্থী।

২০১৯ সালে অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা- জেএসসি ও জেডিসির পাশের হার ৮৭ দশমিক ৯০ শতাংশ।  জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৮ হাজার ৪২৯ জন। মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে জেডিসি পরীক্ষাতে এবার ৮৯.৭৭ শতাংশ পাশ করেছে ।বরিশালের পাসের হার সবচেয়ে বেশি ছিলো আর সবচেয়ে বেশি জিপিএ ৫-GPA 5 পায় ঢাকা বোর্ডের অধীনে শিক্ষার্থীরা।আর মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে জিপিএ ৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা এক হাজার ৬৮২ জন।

সকল শিক্ষাবোর্ড তাদের নিজ নিজ ওয়েবসাইটে জেএসসি বৃত্তির রেজাল্ট ২০২০ প্রকাশ করেছে।জেএসসি বৃত্তি ট্যালেনপুল বা মেধা বৃত্তি এবং সাধারন বৃত্তি এই দুই ভাগে দেয়া হয়। সাধারণত ট্যালেনপুল বৃত্তি বা মেধা বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা বিনা বেতনে পড়ালেখা সহ মাসে ৪৫০/- (চারশত পঞ্চাশ টাকা) করে বছরে মোট ৫৪০০ টাকা বৃত্তি পাবে এবং সাধারন বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা বিনা বেতনে পড়ালেখা সহ মাসে ৩০০/-(তিনশত টাকা) করে বছরে মোট ৩৬০০ টাকা বৃত্তি পাবে। বৃত্তির মেয়াদ হবে ২০২০ সালের জানুয়ারী থেকে ২০২১ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত।

২০১৮ সালের জেএসসি পরীক্ষার ফলাফলঃ

২০১৮ সালের অষ্টম শ্রেণীর জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি ) এবং সমমানের জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয় গত ২৪শে ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে। জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল ২০১৭ উপর ভিত্তি করে জেএসসি বৃত্তির ফলাফল ২০১৮ প্রকাশিত হয়েছে গত ৮/৪/২০১৮ তারিখে। গত বছর ১লা নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে ২১শে নভেম্বর পর্যন্ত চলা এই দুটি পরীক্ষার এবছর সর্বচ্চ ২৪ লাখ ৬৮ হাজার ৮২০ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ছাত্রী ১৩ লাখ ২৪ হাজার ৪২ জন এবং ছাত্র ১১ লাখ ৪৪ হাজার ৭৭৮ জন।

২৪ ডিসেম্বর সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল তুলে দেওয়ার পর শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ঘোষণা দেন যে মোট পাস করেছে ৮৫.৮৩ শতাংশ শিক্ষার্থী। পৃথকভাবে হিসেব করলে জেএসসিতে পাসের হার ৮৫.২৮ শতাংশ, আর জেডিসিতে ৮৯.০৪ শতাংশ।।এবারে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীদের জেএসসি এবং জেডিসি একত্রে সংখ্যা ৬৮,০৯৫ যা গত বছর ছিলো ১৮৪,৩৯৭।

এবছরও মোট ছাত্রের তুলনায় এক লাখ উনআশি হাজার দুইশত চৌষট্টি জন বেশি ছাত্রী জে.এস.সি ও জে.ডি.সি পরীক্ষার অংশগ্রহণ করে। গত ৮ই এপ্রিল ঢাকা ও চট্টগ্রাম বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির রেজাল্ট ২০১৮ প্রকাশ করে এবং ১১ই এপ্রিল যশোর, কুমিল্লা এবং সিলেট বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির রেজাল্ট ২০১৮ প্রকাশ করে তাদের ওয়েব সাইটে। পরের দিন ১২ই এপ্রিল বাকি তিন শিক্ষাবোর্ড দিনাজপুর, বরিশাল এবং রাজশাহী বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির রেজাল্ট ২০১৮ প্রকাশিত হয়।

সকল শিক্ষাবোর্ড তাদের নিজ নিজ ওয়েবসাইটে জেএসসি বৃত্তির রেজাল্ট ২০১৯ প্রকাশ করেছে।জেএসসি বৃত্তি ট্যালেনপুল বা মেধা বৃত্তি এবং সাধারন বৃত্তি এই দুই ভাগে দেয়া হয়। সাধারণত ট্যালেনপুল বৃত্তি বা মেধা বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা বিনা বেতনে পড়ালেখা সহ মাসে ৪৫০/- (চারশত পঞ্চাশ টাকা) করে বছরে মোট ৫৪০০ টাকা বৃত্তি পাবে এবং সাধারন বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা বিনা বেতনে পড়ালেখা সহ মাসে ৩০০/- (তিনশত টাকা) করে বছরে মোট ৩৬০০ টাকা বৃত্তি পাবে। বৃত্তির মেয়াদ হবে ২০১৯ সালের জানুয়ারী থেকে ২০২০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত।

২০১৭ সালের জেএসসি পরীক্ষার ফলাফলঃ

২০১৭ জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭। ফলাফলে গত বছরের (২০১৬) তুলনায় এ বছর পাশের হার বেশ খানিকটা কমেছে। সেই সাথে কমেছে জিপিএ-৫ এর সংখ্যাও।শতাংশের হিসাবে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় এ বছর পাশ করেছে ৮৩ দশমিক ৬৫ শতাংশ পরীক্ষার্থী। গত বছরের(২০১৬) তুলনায় যা প্রায় ৯ দশমিক ৪১ শতাংশ কম।পাশের হারের সাথে এবার জেএসসিতে সর্বোচ্চ ফলধারীর সংখ্যাও কমেছে।

এবার মোট ১,৮৪,৩৯৭ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। গত বছর জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২,৩৫,০৫৯ জন। অন্যদিকে জেডিসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭,২৩১ জন।গত ৮ই এপ্রিল ২০১৮ ঢাকা বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির ফলাফল ২০১৭ এবং চট্টগ্রাম বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির ফলাফল ২০১৭ প্রকাশ করে।

গত ১১ই এপ্রিল যশোর বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির ফলাফল ২০১৭, সিলেট বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির ফলাফল ২০১৭, কুমিল্লা বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির ফলাফল ২০১৭ প্রকাশ করেছে তাদের ওয়েব সাইটে। এবং রাজশাহী বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির রেজাল্ট ২০১৭, বরিশাল বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির রেজাল্ট ২০১৭ এবং দিনাজপুর বোর্ডের জেএসসি বৃত্তির রেজাল্ট ২০১৭ প্রকাশিত হয় ১২ই এপ্রিল।

সকল শিক্ষাবোর্ড তাদের নিজ নিজ ওয়েবসাইটে জেএসসি বৃত্তির রেজাল্ট ২০১৭ প্রকাশ করেছে।জেএসসি বৃত্তি ট্যালেনপুল বা মেধা বৃত্তি এবং সাধারন বৃত্তি এই দুই ভাগে দেয়া হয়। সাধারণত ট্যালেনপুল বৃত্তি বা মেধা বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা বিনা বেতনে পড়ালেখা সহ মাসে ৪৫০/- (চারশত পঞ্চাশ টাকা) করে বছরে মোট ৫৪০০ টাকা বৃত্তি পাবে এবং সাধারন বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা বিনা বেতনে পড়ালেখা সহ মাসে ৩০০/- (তিনশত টাকা) করে বছরে মোট ৩৬০০ টাকা বৃত্তি পাবে। বৃত্তির মেয়াদ হবে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে ২০১৯ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত।

জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে জানার পদ্ধতিঃ

যে কোন মোবাইল অপারেটর এর মেসেজ অপশন এ গিয়ে লিখতে হবে JSC অথবা JDC।এরপর একটি স্পেস দিয়ে আপনার বোর্ড এর প্রথম তিন টি অক্ষর লিখতে হবে। যেমনঃDHA = Dhaka Board | COM = Comilla Board | RAJ = Rajshahi Board | JES = Jessore Board | CHI= Chittagong Board | BAR = Barisal Board | SYL = Sylhet Board | DIN = Dinajpur Board | MAD = Madrassah Board | TEC= Technical Board।

এরপর, একটি স্পেস দিন এবং আপনার রোল নম্বরটি লিখুন। এবার একটি স্পেস দিয়ে আপনার পরীক্ষার সাল অর্থাৎ ২০২০ হলে ‘2020’ লিখুন। এবার মেসেজ টি পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে।

জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল সংশোধন /পুনঃমূল্যায়ন নিয়মাবলীঃ

পরীক্ষার ফলাফল পাবার পর যদি মনে হয় যে আপনার রেজাল্ট ভুল এসেছে তাহলে আপনি ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন / সংশোধনের এর জন্য টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল দিয়ে এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। আবেদন প্রক্রিয়া নিম্নে দেয়া হলঃ

আবেদন করতে মোবাইল এর মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন RSC তারপর স্পেস দিয়ে আপনার বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর। যেমনঃ DHA = Dhaka Board | COM = Comilla Board | RAJ = Rajshahi Board | JES = Jessore Board | CHI= Chittagong Board | BAR = Barisal Board | SYL = Sylhet Board | DIN = Dinajpur Board | MAD = Madrassah Board | TEC= Technical Board।

তারপর স্পেস দিয়ে আপনার রোল নাম্বার তারপর স্পেস দিয়ে লিখুন বিষয় কোড এবং পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ এই নাম্বার এ।এক্ষেত্রে প্রতিটী বিষয় এর জন্য ১২৫ টাকা ফি প্রযোজ্য। ফিরতি এসএমএসে আবেদন ফি হিসাবে কত টাকা কেটে নেয়া হবে তা জানিয়ে একটি পিন নাম্বার পাঠানো হবে। সম্মত থাকলে, মোবাইল এর মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন RSC তারপর স্পেস দিয়ে YES তারপর স্পেস দিয়ে পিন নাম্বার তারপর স্পেস দিয়ে আপনার একটি কন্টাক্ট নাম্বার লিখে পাঠিয়ে দিন ১৬২০০ নাম্বারে। একই এসএমএসে একাধিক বিষয়ের জন্য আবেদন করা যাবে। তার জন্য একটি বিষয় কোড লেখার পর কমা ব্যবহার করুন।

আরো দেখুনঃ  এসএসসি রেজাল্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*
*